সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জে দিরাই-মদনপুর সড়কের ভয়াবহ বাঁকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী একটি বাস উল্টে খাদে পড়ে গেছে। এতে অন্তত ১৫ জন আহত হলেও প্রাণে বেঁচে গেছেন বাসে থাকা ৩০ যাত্রী। রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার নোয়াখালীর দেবগ্রাম এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রোববার বেলা ১১টার দিকে দিরাই থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী যাত্রীবাহী একটি বাস শান্তিগঞ্জ উপজেলার নোয়াখালী দেবগ্রামে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। তবে স্থানীয়দের সহযোগিতার বাসে থাকা যাত্রীরা বের হতে সক্ষম হন। এ সময় বাসে থাকা অন্তত ১৫ জন যাত্রী আহত হন বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। কয়েকজন যাত্রীর অবস্থা গুরুতর হওয়ায় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান তারা।প্রত্যক্ষদর্শী মনোয়ার আহমদ হিমেল আহমদ সংবাদমাধ্যমকে জানান, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দেবগ্রাম এলাকায় একটি বাস খাদে পড়ে যায়। স্থানীয়দের সহযোগিতায় বাস থেকে সকল যাত্রী বের হয়ে আসলেও অনেক হতাহত হয়েছেন। তবে শান্তিগঞ্জ উপজেলার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ লিয়াকত আলী জানান, তারা আহত কাউকে খুঁজে পাননি। আহতরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছে বলে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পেরেছেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করছে। দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শান্তিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী মোক্তাদির হোসেন বলেন, বাস খাদে পড়ে অনেকেই আহত হয়েছেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছেন। দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও যাত্রীদের উদ্ধারে কার্যক্রম চলছে। যান চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। এদিকে এই সড়কের বাঁকগুলোকে ‘মরণ ফাঁদ’ বলছেন স্থানীয়রা। তারা জানান, দিরাই-মদনপুর সড়কে ৫টি বিপজ্জনক বাঁক রয়েছে। প্রায় প্রতিমাসে এসব বাঁকে ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটে। দেবগ্রামের বাসিন্দা আব্দুস সামাদ বলেন, সরু সড়ক বড় গাড়ি পাস হতে পারে না। অন্যদিকে বিপজ্জনক মোড় (বাঁক) থাকার কারণে এ সড়কে দুর্ঘটনা বেশি হয়। গেল কয়েক মাসে এই সড়কে ছোট-বড় তিনটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে।