প্রথম বারের মতো কন্যাকে প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছেন কিম জং উন

16

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন শনিবার প্রথমবারের মতো তার মেয়েকে বিশ্বের কাছে প্রকাশ করেছেন। দেশটির বৃহত্তম ব্যালেস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার আগে বাবা কিমের হাত ধরে মেয়েকে হাটতে দেখা গেছে। উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কেসিএনএ শনিবার জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়া শুক্রবার একটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র হুয়াসাং-১৭ এর পরীক্ষা করেছে। এই পরীক্ষার দিন সবচেয়ে বড় চমক ছিল কিমের কন্যার উপস্থিতি। এর আগে কখনো তাকে প্রকাশ্যে আসতে দেখা যায়নি। বিশ্লেষকরা বলছেন, কন্যাকে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সময় প্রকাশ্যে নিয়ে এসে নিশ্চই ভবিষ্যত বার্তা দিয়েছেন তিনি। হয়তো কিম চতুর্থ প্রজন্মের কাছে তার এই সর্বগ্রাসী রাষ্ট্রের নেতৃত্ব হস্তান্তরের পরিকল্পনারই ইঙ্গিত দিয়েছেন। সেই সঙ্গে দেশটির পারমাণবিক অস্ত্রের উত্তরাধিকার হিসেবে নিজের মেয়েকে প্রকাশ্যে নিয়ে আসার মতো কাজটি তিনি করতে পারেন বলেও ধারণা করা হচ্ছে। বাবা মেয়ের এক সঙ্গে হাঁটার ছবি ভাইরাল হলেও কিমের মেয়ের নামটি কোথাও প্রকাশ করা হয়নি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক স্টিমসন সেন্টারের উত্তর কোরিয়ার নেতৃত্ব বিশেষজ্ঞ মাইকেল ম্যাডেন বলেছেন, ‘এটি প্রথম পরিলক্ষিত উপলক্ষ যেখানে আমরা কিম জং উনের মেয়েকে একটি পাবলিক অনুষ্ঠানে দেখেছি। এটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এবং কিম জং উনের পক্ষ থেকে একটি নির্দিষ্ট মাত্রার স্বাচ্ছন্দ্যের প্রতিনিধিত্ব করে যে তিনি তাকে এই ধরনের ফ্যাশনে জনসমক্ষে আনবেন।’ ওয়াশিংটন-ভিত্তিক উত্তর কোরিয়ার গবেষণা সংস্থা ৩৮ নর্থের জেনি টাউন বলেছেন, কিম তার মেয়েকে একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায় নিয়ে যাচ্ছেন এবং তাদের দুজনের উৎক্ষেপণ দেখার ছবি প্রকাশ করা থেকে বোঝা যায় যে তিনি তার অস্ত্র কর্মসূচি ধীর করার জন্য চাপের কাছে মাথা নত করবেন না। তিনি আরও বলেছেন, ‘কিম তার একনায়কতন্ত্র এবং সর্বগ্রাসী রাষ্ট্রের উত্তরাধিকারের বার্তা দেওয়ার জন্যেই হয়তো কন্যাকে নিয়ে এসেছেন। কেননা ঘটনাগুলোর সঙ্গে মিল রয়েছে।’