রবিবার, ১৭ জানুয়ারী ,২০২১

Bangla Version

বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার জন্য যোগাযোগ করুন (newsroom.somoynews24@gmail.com)

  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৫ জানুয়ারী, ২০২১, ০৭:৫৩:৪৪

কুয়াকাটা বেড়াতে এসে পরিবেশ রক্ষার দাবি সাংবাদিকদের

কুয়াকাটা বেড়াতে এসে পরিবেশ রক্ষার দাবি সাংবাদিকদের

কক্সবাজার প্রতিনিধি: কুয়াকাটায় বেড়াতে এসে প্লাস্টিক কুড়িয়ে সমুদ্র সৈকতে পরিচ্ছন্নতা অভিযান চালানোর মাধ্যমে উপকূলীয় এলাকার পরিবেশ সংরক্ষণের দাবিতে অভিনব কর্মসূচি পালন করেছে পরিবেশবাদী সাংবাদিকদের সংগঠন মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক।সকালে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের জিরো পয়েন্ট এলাকায় সমুদ্র পরিবেশ বিষয়ক সংগঠন সেভ আওয়ার সি-এর ব্যনারে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এতে ঢাকা থেকে আসা মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সদস্যদের সঙ্গে কুয়াকাটা প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ, ট্যুরিস্ট পুলিশের সদস্যরা অংশ নেন। পরে সবার অংশগ্রহণে সৈকত এলাকার প্লাস্টিক কুড়িয়ে পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি পালন করা হয়। ব্যাতিক্রম এ কর্মসূচিকে স্বাগত জানান দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা সাধারণ পর্যটকরাও। মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সভাপতি মাহমুদ সোহেলের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সেভ আওয়ার সি-এর মহাসচিব মোহাম্মদ আনোয়ারুল হক, সিনিয়র সাংবাদিক শাহাদাৎ স্বপন, ইমাম হাসান সোহেল, কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক কাজী সাঈদ প্রমুখ।মানববন্ধনে সেভ আওয়ার সি’র মহাসচিব আনোয়ারুল হক বলেন, সারাদেশে উপকূল অরক্ষিত থাকায় প্রতি বছর দুর্যোগে শত শত মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, বাস্তুহারা হয়। কিন্তু এ খাতে সরকারের অনেক বরাদ্দ থাকলেও তার যথাযথ বাস্তবায়নের অভাবে এখনো উপকূল নিরাপদ করা সম্ভব হয়নি। অথচ বরাদ্দের যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে সমগ্র উপকূলে পরিকল্পিত বনায়ন করা গেলে উপকূলবর্তী মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতের পাশাপাশি সমদ্র সম্পদ সংরক্ষণও সফলভাবে করা যাবে।অনিয়ন্ত্রিত পর্যটন ও প্লাস্টিক দূষণ সমুদ্র প্রতিবেশব্যবস্থাকে চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে বলে দাবি করে এ পরিবেশবাদী নেতা বলেন, পর্যটন কেন্দ্রগুলোকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা গেলে দেশ যেমন বিশ্বের বুকে নতুন পরিচিতি পাবে তেমনি তৈরি হবে সমুদ্র অর্থনীতির বড় সম্ভাবনাও।সমুদ্র সৈকতে এমন অভিনব কর্মসূচি আয়োজনের জন্য মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্ক ও সেভ আওয়ার সি’কে ধন্যবাদ জানিয়ে কুয়াকাটা প্রেসক্লাবের সভাপতি নাসির উদ্দিন বিপ্লব বলেন, এমন আয়োজনের মাধ্যমে দেশের পর্যটন কেন্দ্রগুলোকে তুলে ধরা গেলে ও সংরক্ষণ করা হলে দেশের পর্যটন আরও সমৃদ্ধ হবে।সভাপতির বক্তব্যে মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের সভাপতি মাহমুদ সোহেল বলেন, বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ যে কয়টি স্থানকে ঘিরে পরিচিতি অর্জন করেছে তার মধ্যে কুয়াকাটা অন্যতম হলেও, অপরিচ্ছন্নতার কারণে এ পর্যটন কেন্দ্রটি এখন বাংলাদেশর মান ডুবানোর কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সুপরিচিত এ পর্যটর কেন্দ্র ট্যুরিস্টদের সকাল হয় মানববজ্যে পা দিয়ে। এটা খুবই দুঃখজনক। বিচ রক্ষায় দায়িত্ব না নিতে পারলে বিচ ম্যানেজমেন্ট কমিটিকে দায়িত্ব ছেড়ে দিতে হবে।এ সময় বক্তব্য রাখেন মেরিন জার্নালিস্টস নেটওয়ার্কের নেতা রেজাউল করিম, কেফায়েত শাকিল, ইকবাল ফরহাদ, তানভীর আহমেদ, উপকূলীয় মানব উন্নয়ন সংস্থার (সিকোডা) প্রধান নির্বাহী আনোয়ার হোসেন আনু, সাংবাদিক আবুল হোসেন রাজু প্রমুখ।

https://web.facebook.com/Somoy-news

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন,মাদক সম্রাটতো সংসদেই আছে। তাদেরকে বিচারের মাধ্যমে আগে ফাঁসিতে ঝুলান। আপনি কি একমত?