মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৭, ১২:০৬:৫২

প্রধান বিচারপতির স্বপদে ফেরা নিয়ে কার বক্তব্য সত্য?

প্রধান বিচারপতির স্বপদে ফেরা নিয়ে কার বক্তব্য সত্য?

ঢাকা: প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার স্বপদে ফেরার বিষয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল ও দিল্লিতে বাংলাদেশের হাইকমিশনারের বক্তব্যের কোনটি সত্য- এ প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। শনিবার বিকালে এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, একদিকে অ্যাটর্নি জেনারেল ও আওয়ামী লীগের নেতারা বলছেন, প্রধান বিচারপতি আর কোনোদিন নিজের আসনে বসতে পারবেন না, এটা সুদূরপরাহত। অন্যদিকে সম্প্রতি দিল্লিতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার বলেছেন, প্রধান বিচারপতি যে কোনো সময় ফিরে আসতে পারেন। এলে যে কোনো সময় তার দায়িত্ব তিনি পালন করতে পারবেন। এটা কী ধরনের কথা হলো? তাহলে কার কথা সত্য? সরকার কী চাচ্ছে?
জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উদ্যোগে প্রয়াত রাজনৈতিক অলি আহাদের পঞ্চম মৃত্যুবার্ষিকী ও প্রয়াত অধ্যাপক পিয়াস করিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন দাখিলে সরকারের কমিটি গঠনের কথা উল্লেখ করে মওদুদ বলেন, রিভিউ পিটিশনের জন্য আপনারা কমিটি করেছেন। যদি তাই হয়ে থাকে তাহলে কেন আপনারা প্রধান বিচারপতিকে এত লাঞ্ছিত ও অপমানিত করলেন? আপনারা মিথ্যা কথা বলেছেন, স্বাস্থ্যগত কারণে তিনি (সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) ছুটি নিয়েছেন। সেই ছুটির আবেদনপত্রে ৭টা বানান ভুল ছিল। ওই ভুয়া আবেদনপত্রে উনার একটা প্রশ্নবিদ্ধ সইয়ের নিচে লেখা ছিল প্রধান বিচারপতি, বাংলাদেশ।
অথচ তিনি যাওয়ার আগে সাংবাদিকদের কাছে যে বিবৃতিটা দিয়ে গেলেন, সেখানে তার নাম আছে, একটাও বানান ভুল নাই এবং নিচে লেখা আছে বাংলাদেশের প্রধান বিচারপতি। সুতরাং এতেই প্রমাণ হয় সরকার কোন পর্যায়ে নেমে গেছে। যেটা বাংলাদেশের বিচার বিভাগের হাইয়েস্ট অফিস, যেটা একটা প্রতিষ্ঠান, তাকে এভাবে আপনারা চুরমার করে দিলেন?
ভারত-চীন-রাশিয়াকে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের বিষয়ে প্রভাবিত করতে না পারা বর্তমান সরকারের কূটনৈতিক ব্যর্থতা বলে মন্তব্য করেন তিনি।
সংগঠনের সভাপতি একেএম মোয়াজ্জেম হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলমের পরিচালনায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা প্রয়াত অলি আহাদের মেয়ে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।
 



আজকের প্রশ্ন

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, বর্তমানে দেশের মানুষের ক্রয়ক্ষমতা নাগালের বাইরে চলে গেছে। আপনি কি একমত?