শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, ০৬:২৮:১৮

রোহিঙ্গাদের সাহায্যে কারও কাছে হাত পাতিনি: জয়

রোহিঙ্গাদের সাহায্যে কারও কাছে হাত পাতিনি: জয়

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযু্ক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, ‘উন্নত বিশ্ব যখন তাদের প্রতিবেশী দেশের মানুষের বিপদে এগিয়ে আসে না, তখন আমরা এগিয়ে এসেছি। পাশের দেশ মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গা নাগরিকদের জন্য দরজা খুলে দিয়েছি। আমরা তাদের সাহায্যের জন্য কারও কাছে হাত পাতিনি।’
শনিবার বিকেলে জয়বাংলা ইয়ং অ্যাওয়ার্ড প্রদানকালে তিনি এসব কথা বলেন। সাভারের শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইয়ুথ সেন্টারে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
জয় বলেন, ‘আমরা বলেছি, আমরা একবেলা খেয়ে হলেও তাদের খাওয়াবো। ১৭ কোটিকে খাওয়াতে পারলে আরও এক কোটিকেও খাওয়াতে পারব। সেটা হয়েছে আমাদের আত্মবিশ্বাসের কারণে।’
তিনি বলেন, ‘অনেকে আমাকে প্রশ্ন করে, আমরা মালয়েশিয়ার মতো হতে পারি না কেন? এর সহজ জবাব হচ্ছে, মালয়েশিয়ায় যে দল স্বাধীনতা এনে দিয়েছিল তাদেরকে দেশের মানুষ পরপর চার-পাঁচ বার ভোট দিয়ে ক্ষমতায় রেখেছে।  কিন্তু আমাদের স্বাধীনতার ৪৬ বছরের ইতিহাসে মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামী লীগ সবমিলিয়ে ১৬ বছর ক্ষমতায়। এখন একটানা ১০ বছর ধরে আছে। তাতেই দেখেন দেশ কোথায় চলে গেছে। আগামী ১০/১৫ বছর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে আমাদের দেশ উন্নত বিশ্বের কাতারে যুক্ত হবে।’
প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয় বলেন, ‘স্বাধীনতার চেতনা না থাকলে আত্মবিশ্বাস ও দেশপ্রেম থাকে না। যারা দেশের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে না তারা বাংলাদেশের উপকারে কী কাজ করবে?’
প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা বলেন, ‘১০ বছর আগে বিশ্বের সামনে আমাদের দেশের কী পরিচিতি ছিল? আমরা দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন ছিলাম। জঙ্গি দেশ হিসেবে পরিচিত ছিলাম। আর আজ আমরা বিশ্বের জন্য এক বিস্ময়।’
তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষের ওপর আমাদের বিশ্বাস আছে। এজন্য আমরাই পারি, আমরাই পারবো। দেখুন আজ বাংলাদেশ কোথায় চলে গেছে। আমরা আজ নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করছি। কেউ ভাবেনি আমরা তা পারবো। বিশ্বব্যাংক ভাবতেও পারেনি বাংলাদেশ তা পারবে।’
তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ স্বাধীনতার শক্তি, কারও কাছে কোনোদিন মাথা নত করবে না।’
তরুণদের মধ্যে আগামী দিনের নেতৃত্ব লুকিয়ে আছে  মন্তব্য করে  উপস্থিত তরুণদের উদ্দেশ্যে জয় বলেন, ‘আপনাদের প্রতি আমার অনুরোধ, ইয়ং যারা আজ স্বীকৃতি পেয়েছেন। আপনারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে সহযোগিতা করবেন। আরেকটি অনুরোধ, স্বাধীনতার চেতনা নিজেরা ভুলবেন না এবং আগামী দিনের তরুণদের ভুলতে দেবেন না।’
এ সময় তিনি বিএনপি চেয়ারপারসনের সমালোচনা করে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, ‘৩০ লাখ শহীদের ইতিহাস ভুলিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। খালেদা জিয়া সরাসরি ত্রিশ লাখের কথা অস্বীকার করেছেন। এমন সুযোগ যেন তারা আর না পায় সে ব্যাপারে সবাই সজাগ থাকবেন।

এই বিভাগের আরও খবর

  মানহানি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন

  খালেদা জিয়াকে নড়াইলের মামলায় ৬ মাসের জামিন

  খালেদা জিয়ার ৬ মাসের জামিন বহাল

  ছাত্রদলের দু’পক্ষের সংঘর্ষে ছাত্র নেতা রাজু নিহত

  বিএনপি তো সব সময়ই সংলাপের ডাক দিয়ে যাচ্ছে: রিজভী

  ভিডিও ফুটেজ দেখে সাংবাদিক নিপীড়নকারীদের শনাক্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

  স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের অভিভাবকরা অজানা আতঙ্কে উৎকণ্ঠিত হয়ে দিশেহারা : রিজভী

  সেতুমন্ত্রী রাস্তায় নেমে পড়লেন গাড়ির লাইসেন্স যাচাই করতে

  আওয়ামী লীগ গুজবের আশ্রয় নিয়েছে : রিজভী

  আওয়ামী লীগের আহত কর্মীদের প্রয়োজনে বিদেশে পাঠানো হবে : প্রধানমন্ত্রী

  শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বিএনপি সুবিধা নিতে চেয়েছিল: হানিফ



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন,মাদক সম্রাটতো সংসদেই আছে। তাদেরকে বিচারের মাধ্যমে আগে ফাঁসিতে ঝুলান। আপনি কি একমত?