বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ,২০১৭

Bangla Version
  
SHARE

বৃহস্পতিবার, ২৯ জুন, ২০১৭, ০২:৫০:৩১

৩০ জুলাই থেকে ইসির সংলাপ শুরু

৩০ জুলাই থেকে ইসির সংলাপ শুরু

স্টাফ রিপোর্টার, সময় নিউজ ২৪ ডট কম : আগামী ৩০ জুলাই থেকে সংলাপে বসার  সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের মধ্য দিয়ে সংলাপ শুরু করবে নির্বাচন কমিশন। সাবেক নির্বাচন কমিশনার ও গণমাধ্যমের সঙ্গেও বৈঠক করবে ইসি। আর আগস্টের শেষ সপ্তাহ থেকে শুরু হবে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ। কমিশন সচিবালয় এরই মধ্যে সংলাপের খসড়া তৈরি করেছে। আগামী ১৬ জুলাই চূড়ান্ত হবে সংলাপের সময়সীমা। একইসঙ্গে চূড়ান্ত রোডম্যাপও প্রকাশ করবে তারা। নির্বাচন কমিশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে। কমিশন সূত্রে জানা গেছে, ২৫ আগস্ট থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত ইসি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বসবে। এর আগে ৩০ জুলাই সুশীল সমাজ, ৩ আগস্ট সাবেক সিইসি ও ইসি এবং ১৯ আগস্ট গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইসি সংলাপ করবে। সবার সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে ডিসেম্বরের মধ্যে চূড়ান্ত সুপারিশমালার প্রস্তুত করবে কমিশন। বুধবার এ লক্ষ্যে কর্মপরিকল্পনার খসড়া নিয়ে একদফা আলোচনা করেছে নির্বাচন কমিশন। সার্বিক বিষয়ে নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিব ও অতিরিক্ত সচিবের সঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশনার আলোচনা করেন। নির্বাচন কমিশন সচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, ‘বুধবার ঈদের পর প্রথম কর্মদিবসেই প্রথম দফা আলোচনায় সংলাপের কিছু বিষয় ঠিক করে দিয়েছেন সিইসি। প্রাথমিকভাবে সংলাপের তারিখও নির্ধারণ করা হয়েছে। ৩০ জুলাই এটা শুরুর কথা বলা হয়েছে। আমরা অন্যদের সঙ্গে আগে আলোচনা করে শেষ দিকে রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বসব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ সচিব বলেন, ‘সংলাপ নিয়ে ৩ জুলাই আরেক দফা আলোচনা করবে ইসি। এরপর আরও একাধিকবার বসে আমরা সব ঠিক করবো। ১৬ জুলাই চূড়ান্ত অনুমোদিত রোডম্যাপ প্রকাশ করা হবে। ওই রোডম্যাপে সংলাপের সময়সীমা জানিয়ে দেওয়া হবে।’ উল্লেখ্য, আগামী ২০১৯ সালের ২৮ জানুয়ারির আগের ৯০ দিনের মধ্যে একাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ২০১৮ সালের ৩১ অক্টোবরের পর শুরু হবে একাদশ সংসদ নির্বাচনের সময় গণনা।



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

কিছু সহিংসতা ও অনিয়ম হলেও সামগ্রিকভাবে ইউপি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে—সিইসির এই বক্তব্যের সঙ্গে আপনি একমত?