শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ,২০১৮

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭, ০৬:৪৯:১৮

বিএনপির ৭ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

বিএনপির ৭ নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

লক্ষ্মীপুর: দীর্ঘ নয় বছর পর লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বিএনপির সাবেক সাত নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে।
মঙ্গলবার বহিষ্কৃতদের আবেদনের ভিত্তিতে লক্ষ্মীপুর জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক সাহাবুদ্দিন সাবু সাত নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেন।
দুপুরে দলীয়ভাবে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়।
এরআগে ১৪ অক্টোবর পৌর বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি বহিষ্কৃত নেতা হানিফ পাটওয়ারি বহিষ্কৃরাদেশ প্রত্যাহারের জন্য জেলা বিএনপির সভাপতি ও সম্পাদক বরাবর আবেদন করেন।
বহিষ্কৃরাদেশ প্রত্যাহার হওয়া নেতারা হলেন রামগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভপতি হানিফ পাটওয়ারি, পৌর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান মিরন, উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লকিয়ত উল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক সায়েদ আহমেদ দাদু, উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান, সিনিয়র সহ-সভাপতি মনির হোসেন ও সহ-সভাপতি আবুল বাসার।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ২০০৮ সালে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। তবে ওই সময় অভিযুক্তদের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়নি, কেবলমাত্র সংবাদপত্রে বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বহিষ্কারের বিষয়টি জানানো হয়। তবুও নেতারা দল ত্যাগ না করে দলীয় কর্মকা- অব্যাহত রাখেন। প্রতিকূল রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটেও তাদের রাজনীতির মাঠে দেখা যায়। যে কারণে ওই সাত নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়।
দীর্ঘ নয় বছর পর সাত নেতার বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারে দলের তৃণমূল নেতাকর্মীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য দেখা দেয়। উপজেলার বিভিন্নস্থানে নেতাকর্মীদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে। এ সময় জেলা নেতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়।



 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন,মাদক সম্রাটতো সংসদেই আছে। তাদেরকে বিচারের মাধ্যমে আগে ফাঁসিতে ঝুলান। আপনি কি একমত?