বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ,২০১৯

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৯ জুলাই, ২০১৯, ১০:২৬:৪০

‘জয় শ্রীরামের’ পর এবার ‘গোমাতা কি জয়’ না বলায় একাধিক মুসলিমকে হেনস্থা

‘জয় শ্রীরামের’ পর এবার ‘গোমাতা কি জয়’ না বলায় একাধিক মুসলিমকে হেনস্থা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় একাধিক মুসলিমকে পিটুনির পর এবার গরু বহনের অভিযোগে ২৪ জনের একটি দলকে হেনস্থা করা হয়েছে। অভিযুক্তরা কান ধরে ওঠ-বস করার পর জোর করে ‘গো মাতা কি জয়’ বলিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। গত রোববার লজ্জাজনক ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশর খান্ডওয়ায়। ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ছয়জন মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষ। এরা সকলেই বেশ কিছু গবাদি পশু নিয়ে মহারাষ্ট্রের একটি পশু মেলাতে বিক্রি করতে যাচ্ছিলেন। তাদের পথরোধ করে সাভালিকেরা গ্রামের ১০০ জন বাসিন্দা। গ্রামবাসীদের অভিযোগ ওই ২৪ জন ২০টি গবাদি পশু জবাইয়ের জন্য নিয়ে যাচ্ছিল। এরপর শাস্তি হিসাবে ২৪ জনকে হাত বেঁধে হাঁটু মুড়ে বসানো হয়। পরে খালবা থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনার ভিডিও ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। শুরু হয়েছে নিন্দার ঝড়। ভিডিওতে দেখা গেছে- দলের ১৫ জনের হাত দড়ি দিয়ে বাঁধা ও কান ধরা অবস্থায় তাদের জোর করে ‘গো মাতা কি জয়’ বলানো হয়। ভিডিওটিতে আরও দেখা গেছে সাদা রঙের জামা পরা এক ব্যক্তি মোবাইলে সবার মুখের ক্লোজআপ ছবি বা ভিডিও নিচ্ছেন। বাকি দুজন কড়া নজর রাখছেন হাত বাঁধা পুরুষদের ওপর। খালবা থানার ইন্সপেক্টর হরিশঙ্কর রাওয়াত জানান, ‘গরু বহনকরী কয়েকজনকে গ্রামবাসী থানায় নিয়ে আসে। পশু ভর্তি ২১ ট্রাককে আটক করেছি। গরুগুলো গোশালয়ে পাঠানো হয়েছে। গরু মধ্যপ্রদেশের হারদা জেলা থেকে মহারাষ্ট্রের দিকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল।’ জেলা পুলিশ সুপারিন্টেডেন্ট শিবদয়াল সিং জানান ‘আটক ২৪ অভিযুক্ত ব্যক্তির মধ্যে কেউই নিজেদের দাবির স্বপক্ষে বৈধ নথি দেখাতে পারেননি। তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

https://web.facebook.com/Somoy-news

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন,মাদক সম্রাটতো সংসদেই আছে। তাদেরকে বিচারের মাধ্যমে আগে ফাঁসিতে ঝুলান। আপনি কি একমত?