শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ,২০২১

Bangla Version

বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার জন্য যোগাযোগ করুন (newsroom.somoynews24@gmail.com)

  
SHARE

মঙ্গলবার, ১২ জানুয়ারী, ২০২১, ০৪:০৫:২২

বড়াইগ্রাম পৌর নির্বাচন: আওয়ামীলীগের মনোয়ন প্রত্যাশী ৪ জন

বড়াইগ্রাম পৌর নির্বাচন: আওয়ামীলীগের মনোয়ন প্রত্যাশী ৪ জন

নাটোর প্রতিনিধি:  চতুর্থ ধাপে দেশের ৫৬ টি পৌরসভা নির্বাচনের অংশ হিসেবে আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি নাটোরের বড়াইগ্রাম পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। গত ৩ জানুয়ারি তারিখে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ১৭ জানুয়ারি, মনোনয়নপত্র বাছাই ১৯ জানুয়ারি এবং প্রার্থিতা প্রত্যাহার ২৬ জানুয়ারি।  এই নির্বাচনে আওয়ামীলীগের পক্ষে ৪ জন প্রার্থী দলীয় টিকেট পাওয়ার লক্ষ্যে দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। এরা হলেন, বর্তমান মেয়র ও পৌর আ’লীগের সদস্য আব্দুল বারেক সরদার, পৌর আ’লীগের সহ সভাপতি ও জেলা আ’লীগের সদস্য মাজেদুল বারী নয়ন, পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাহাবুবুল হক বাচ্চু ও উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কালাম জোয়ার্দার।  পৌর এলাকার কয়েকজন ভোটারের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এবারে নির্বাচনে পৌরবাসী শিক্ষিত ও যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দিবে। এক্ষেত্রে দলীয় মনোনয়ন মূখ্য নয়। এ সময় অনেকেই বর্তমান মেয়র আব্দুল বারেক সরদারের শিক্ষাগত যোগ্যতা, রাজনীতিতে পারিবারিক চর্চা, নিজের অবস্থান ও দক্ষতা,  পৌর মেয়র হিসেবে রাষ্ট্রিয় কর্মকান্ডে অংশগ্রহণের অনীহা এবং  পৌরসভার উন্নয়ন সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করেন। স্থানীয় আ’লীগের বেশ কয়েকজন নেতার অভিমত ২০১৪ সালের আগে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বারেক সরদার আলাদীনের চেরাগের ঘষাতেই গতবার মনোনয়ন পেয়েছিলো। কিন্তু এবারে মনোনয়ন বোর্ড নিশ্চয়ই প্রকৃত আওয়ামীলীগ চর্চাকারী প্রার্থীকেই মনোনয়ন দিবে বলে বিশ্বাস  পোষণ করেন নেতৃবৃন্দ।বিশ্লেষকদকের মতে, তরুণ নেতা ও আ’লীগ রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান মাজেদুল বারী নয়ন ইতোমধ্যে স্থানীয় আ’লীগ রাজনৈতিক কর্মকান্ডে যোগ্য নেতৃত্বের প্রমাণ দিতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি পৌরসভার তরুণদের কাছে অত্যান্ত জনপ্রিয় ব্যক্তি। অধ্যক্ষ মাহাবুবুল হক বাচ্চু ২০০৮ সালের পূর্বে বিএনপি রাজনীতির সাথে জড়িত থাকলেও পরবর্তীতে আওয়ামীলীগে যোগদানের পর তার রাজনৈতিক সক্রিয়তা অন্যান্য নেতাদের দৃষ্টি কেড়েছে। পৌরসভার বিভিন্ন এলাকাতে জামায়েত ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের ধ্বংসাত্নক কর্মকান্ড বন্ধ করতে তার নেতৃত্ব স্থানীয় পর্যায়ে প্রশংসনীয় হয়ে উঠে। আবুল কালাম জোয়ার্দার বর্তমানে জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে স্থানীয় পর্যায়ে জনসেবা দিয়ে যাচ্ছেন। তবে তিনি উপজেলা পর্যায়ের রাজনীতিতে দুই ভাগে বিভক্ত একটির পক্ষ হয়ে রাজনৈতিক কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন।উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মিয়াজী আওয়ামীলীগ থেকে উল্লেখিত ৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশীর সংবাদ নিশ্চিত করে জানান, দলের মনোনয়ন বোর্ড যাকে মনোনয়ন দিবে আ’লীগের নেতা-কর্মী তার পক্ষেই অবস্থান নিবে।  

এই বিভাগের আরও খবর

https://web.facebook.com/Somoy-news

আজকের প্রশ্ন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন,মাদক সম্রাটতো সংসদেই আছে। তাদেরকে বিচারের মাধ্যমে আগে ফাঁসিতে ঝুলান। আপনি কি একমত?